Breaking News
প্রাধানমন্ত্রী কুসুম যোজনা

প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনা কি। পিএম কুসুম যোজনা 2022-23 অনলাইনে কিভাবে আবেদন করবেন। PM Kusum Yojna online application form।

প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনাঃ- ভারতবর্ষ হলো একটি কৃষি প্রধান দেশ তাই ভারত সরকার শিল্পক্ষেত্রে পাশাপাশি কৃষি ক্ষেত্রেও উন্নতির জন্য অনেক উদ্যোগ নিয়েছে। ভারতের কৃষি ব্যবস্থার মেরুদন্ড শক্ত করার জন্য কেন্দ্র সরকার এদেশের কৃষকদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে একটি নতুন প্রকল্প নিয়ে এসেছে। কুসুম যোজনা ওরফে কিষাণ উর্জা সুরক্ষা এবং উত্থান অভিযান হল কৃষক ভাইদের জন্য নিয়ে আসা এক অন্যতম লাভজনক প্রকল্প। এই প্রকল্পের মাধ্যমে কেন্দ্র সরকার কৃষকদের সেচ কার্যের জন্য সৌরচালিত ওরফে সোলার পাম্প প্রদান করবে। এতে করে পরিবেশ দূষণ কম হওয়ার পাশাপাশি দেশের কৃষি ক্ষেত্র অনেক সমৃদ্ধ হবে।

কুসুম যোজনার লক্ষ্য

প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনাকে ভারতের কৃষি ক্ষেত্রে উন্নয়নের জন্য নিয়ে আসা হয়েছে। এই যোজনার অধীনে সেচ কার্যের জন্য ব্যবহৃত ডিজেল বা পেট্রোল চালিত পাম্প গুলিকে সৌরবিদ্যুৎ চালিত পাম্পে পরিবর্তন করা হবে এবং সম্পূর্ণ ব্যবস্থায় একটি সৌর বিদ্যুৎ সংরক্ষণ করার ব্যবস্থাও থাকবে যাতে করে সেচ কার্য শেষে বাড়তি বিদ্যুৎ কৃষকরা সরাসরি সরকারকে প্রদান করবে। এবং এর ফলে দেশের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা আরও মজবুত হবে এবং কৃষকদের আয় ও বৃদ্ধি পাবে। এছারাও ডিজেল বা পেট্রোল চালিত পাম্প চলাকালীন উৎপন্ন হওয়া শব্দদূষণ ও বায়ুদূষণ ও কিছুটা রোধ হবে।

প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনা কর্মসূচি

• সর্বপ্রথম কেন্দ্র সরকার ওই যোজনা অধীনে কৃষিক্ষেত্রে সেচের জন্য সৌর বিদ্যুৎ চালিত পাম্প তৈরি করবে।
• কুসুম যোজনার আওতায় থাকা তিন কোটি পেট্রোল বা ডিজেল চালিত পাম্প কে সৌর বিদ্যুৎ চালিত পাম্পে পরিবর্তন করবে।
• প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনার লক্ষ্য পূরণ করার জন্য মোট 1 কোটি 40 লাখ টাকা খরচ ধরা হয়েছে।
• এই যোজনার আওতায় থাকা কৃষকদের কেন্দ্র সরকার সোলার প্যানেল সরবরাহ করবে।

প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনা সম্পর্কে কিছু তথ্য

অনেক সময় বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফলে আমাদের দেশের কৃষকরা বহু সমস্যার সম্মুখীন হন। এছাড়াও কৃষকদের অর্থনৈতিক সমস্যাও উল্লেখযোগ্য। যেমন খরা বা বন্যার সময়ে কৃষক ভাইদের অনেক ফসল নষ্ট হয়। ভারত সরকার কৃষকদের জন্য সোলার পাম্প ইনস্টল করে তাদের সোলার প্রোডাক্ট কিনতে উৎসাহিত করবে। এই প্রশ্নের মাধ্যমে 2021 সালে মোট কুড়ি লক্ষ সোলার পাম্প স্থাপনে সহায়তা করেছে । এই বিষয়ে আপনি কেন্দ্র সারকার এর official website এ গিয়ে আরো তথ্য জানতে পারবেন। https://pmkusum.mnre.gov.in/landing.html

প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনা সম্পর্কে কিছু তথ্য

কেন্দ্র সরকারের এ প্রকল্পের মাধ্যমে সমস্ত রাজ্যের কৃষক ভাইয়েরা অনেক উপকৃত হবেন। এই প্রকল্পের মাধ্যমে ভারতে যে সমস্ত অঞ্চলে কৃষক ভাইদের খরার জন্য সমস্যায় পড়তে হতো তাদের অনেকটা সুবিধা হবে । প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনার মাধ্যমে 2022 সালের মধ্যে তিন কোটি সোলার পাম্প বসানো হবে।

প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনা বৈশিষ্ট্য গুলি

এ প্রকল্পের মাধ্যমে কৃষকদের সম্পূর্ণ ব্যবস্থার মোট খরচের মাত্র 10 শতাংশ ব্যয় করতে হবে। এবং 60% পরিমাণ সরকার খরচ করবে 30 শতাংশ অর্থ ব্যাংক থেকে ঋণের মাধ্যমে পাওয়া যাবে। এই সোলার প্যানেলের মাধ্যমে কৃষকরা কৃষি কাজের জন্য তাদের অনুর্বর জমি ও ব্যবহার করতে পারবে।

প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনা- আবেদন করতে কত খরচ হবে

এই প্রকল্পের আওতায় যাওয়ার জন্য আবেদনকারীর খরচের অঙ্ক নিচে উল্লেখ করা হলো।

• হাফ মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য আবেদনকারী কে 2500 টাকা এবং রেজিস্ট্রেশন ফি জি এস টি হরে দিতে হবে।
• এক মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য আবেদনকারী কে 5000 টাকা এবং রেজিস্ট্রেশন ফি জি এস টি হরে দিতে হবে।
• দেড় মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য আবেদনকারী কে 7000 টাকা এবং রেজিস্ট্রেশন ফি জি এস টি হরে দিতে হবে।
• দুই মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য আবেদনকারী কে 10000 টাকা এবং রেজিস্ট্রেশন ফি জি এস টি হরে দিতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী কুসুম ধরনের সুবিধা কারা কারা পেতে পারবেন

1) কৃষক
2) সমবায় সমিতি
3) সোলার উৎপাদনকারী সংস্থা
4) পঞ্চায়েত
5) জল গ্রাহক সমিতি

কুসুম যোজনার জন্য আবেদন করার ক্ষেত্রে কি কি ডকুমেন্টস লাগবে

এই প্রকল্পের আবেদন করার জন্য আবেদনকারীর আধার কার্ড, ব্যাংক একাউন্টের শংসাপত্র, মোবাইল নাম্বার, ঠিকানার প্রমাণ, এবং একটি পাসপোর্ট সাইজ ছবি লাগবে ।

পিএম কুসুম যোজনার জন্য আবেদন প্রক্রিয়া

1) আবেদনকারীকে সর্বপ্রথম এই লিংকে ক্লিক করে প্রধানমন্ত্রী কুসুম যোজনার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে।
2) ওয়েবসাইটের হোমপেজে apply online এর অপশন দেখতে পাবেন। অপশনে ক্লিক করতে হবে।
3) এরপরে আপনার সামনে একটি ফরম ওপেন হবে দাঁতের আবেদনকারীকে তার বিভিন্ন তথ্য যেমন নাম ঠিকানা আধার নম্বর মোবাইল নম্বর ইত্যাদি ফিলাপ করতে হবে।
4) এরপর আবেদনকারীকে কিছু প্রয়োজনীয় নথি ওয়েবসাইটের একটি স্থানে আপনার করতে হবে। আবেদনকারীর নিজের আধার কার্ড নম্বর এবং ব্যাংক একাউন্টের এক কপি আপলোড করতে হবে।
5) ফর্মে সমস্ত তথ্য সঠিকভাবে ফিলাপ করার পর সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে।
6) সাবমিটএ ক্লিক করলেই আবেদনকারীর আবেদনপত্র কুসুম যোজনায় রেজিস্টার হয়ে যাবে।

বিশেষ কথা– কিছু ভুয়ো ওয়েবসাইট এ এই প্রকল্পের রেজিস্ট্রেশন এর নাম করে আবেদনকারী কাছ থেকে মোটা অংকের অর্থ চাওয়া হয়। তাই ভাল করে পরখ করে কেবলমাত্র সরকারি ওয়েবসাইটেই আবেদন করুন।

আরো পড়ুন- স্বাস্থ্য সাথী কার্ড -এর জন্য কিভাবে আবেদন করবেন ২০২২-এ অনলাইন ও অফলাইনে । Apply for Swasthya Sathi card 2022 online & offline

Share This:
Advertisement

Check Also

গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্ন-উত্তর

আবাস প্লাস যোজনায় গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্ন-উত্তর । Pradhan Mantri Awas Yojana Gramin List AtoZ Information

Pradhan Mantri Awas Yojana Gramin (প্রধান মন্ত্রী গ্রামীন আবাস যোজনা) সংক্ষেপে পিএমএওয়াই(জি) PMAY(G) বা আবাস …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *