Breaking News
সহজ অনলাইন লোন

২৪টি সেরা অনলাইন লোন অ্যাপস সম্পর্কে জানুন । Top 24 Online Loan apps Details

সেরা অনলাইন লোন অ্যাপস: নমস্কার বন্ধুরা, এখন এই পোস্টটির মাধ্যমে আমি আপনাদের সেরা অনলাইন লোন এপস বা অনলাইন মোবাইল ই লোন পাওয়ার জন্য যে সমস্ত এপ্লিকেশনগুলি রয়েছে সেগুলি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করব। কিভাবে আপনারা কোন অ্যাপস থেকে কত ইন্টারেস্টে, কত সময়ের জন্য, কতটা পরিমাণ অর্থ ব্যক্তিগত বা পার্সোনাল লোন হিসেবে পেতে পারেন?

বর্তমানে মানুষের নিত্য চাহিদার পরিমাণ অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে আর সেইজন্য প্রয়োজন পড়ছে অতিরিক্ত অর্থ । এবং অনেকের ক্ষেত্রেই সেই পরিমাণে আয় না হওয়ার দরুন হঠাৎ কোন প্রয়োজন বা চাহিদা আসলে অতিরিক্ত অর্থের প্রয়োজন পড়ে। আর সেই অর্থ নিজের কাছে না থাকলে বা পরিবারের সদস্যরা বা বন্ধুমহল দিতে রাজি না হলে তখন কিন্তু আমরা এই লোন অ্যাপসগুলোর থেকে খুব দ্রুত ব্যক্তিগত সহজ অনলাইন লোন পেয়ে থাকি। যেখানে ব্যাংক বা অন্য কোন ঋণসংস্থা থেকে ঋণ নেওয়ার জন্য অনেক কাগজপত্র এবং যথেষ্ট সময় প্রয়োজন পড়ে। এক্ষেত্রে এই লোন এপসগুলি অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায় হিসেবে খুব দ্রুততার সঙ্গে অল্প কিছু শর্তে সহজ অনলাইন ই লোন দিয়ে থাকে। যার মাধ্যমে আপনি আপনার ইমারজেন্সী প্রয়োজনগুলি মেটাতে পারবেন।

লোন নেওয়ার অ্যাপস

তবে এইসঙ্গে একটা বিষয় জানা দরকার যে, আপনারা এই অনলাইন লোন এপ্লিকেশন বা অ্যাপস গুলো থেকে লোন নেওয়ার আগে অবশ্যই দেখে নিবেন যে এই অ্যাপস গুলো RBI গাইডলাইন্স ফলো করছে কিনা। আর বি আই গাইডলাইন্স ফলো করে এরকম online loan apps থেকেই আপনার ইমার্জেন্সি কোন দরকার যেমন মেডিকেল সমস্যা, ছেলে-মেয়ের পড়াশুনা বা বিয়ে, বা আপনার শখ পূরণ করার জন্য যে অর্থের প্রয়োজন সেটি আপনি নিতে পারেন। 

আবার অনেকের প্রশ্ন হতে পারে যে, এই সব অনলাইন মোবাইল লোন অ্যাপস গুলো কি সত্যি সত্যি লোন দেয়?
এর উত্তর হল যে RBI গাইডলাইন ফলো করা সহজ অনলাইন লোন অ্যাপস গুলো সত্যি সত্যি আপনাদের খুব সহজে দ্রুততার সঙ্গে বেশ পরিমান অর্থ লোন হিসেবে দিয়ে থাকে। তবে কিছু ফ্রড বা জাল অ্যাপসও রয়েছে যেগুলো আপনার কাছ থেকে ব্যাক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করে বা কিছু অর্থ লোন হিসেবে দিয়ে পরবর্তীতে সেই লোনের উপর অনেক ইন্টারেস্টে যোগ করে পরিশোধ করার জন্য আপনাকে বিভিন্নভাবে চাপ দিতে থাকে তো আপনি অবশ্যই দেখে নিবেন যে আরবিআই গাইডলাইন্স ফলো করছে কিনা। এই বিষয়ে আরো জানতে দেখুন SBI-এর ৬ টিপস

তো বন্ধুরা, আজ এই পোস্টে আমি আপনাদের কিছু পার্সোনাল বা ব্যক্তিগত অনলাইন লোন অ্যাপস সম্পর্কে তথ্য প্রদান করব। নিচে একটা তালিকা দেওয়া হয়েছে যেখান থেকে আপনি জানতে পারবেন লোন নেওয়ার অ্যাপস গুলি কত টাকা পর্যন্ত লোন দেয়, কতদিনের জন্য দেয়, রেট অফ ইন্টারেস্ট কত। তারপর সেগুলো নিয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব।

২০২২-২৩ সালে ভারতের সেরা লোন অ্যাপসগুলি তালিকা:

নিচের তালিকাটিতে ২০২২-২৩ সালের ভারতের সেরা সহজ অনলাইন লোন এপসগুলির তুলনা করা হয়েছে। এগুলি সবই গুগল প্লে স্টোরে রয়েছে। বার্ষিক সুদের হার, ঋণের পরিমাণ, এবং অ্যাপ রেটিং এর উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন লোন অ্যাপের তুলনা এখানে করা আছে। এই টেবিলটি আপনাকে আপনার জন্য অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায় হিসেবে উপযুক্ত লোন অ্যাপসটি খুঁজে পেতে সহায়তা করবে। যে অনলাইন লোন অ্যাপস টি আপনার জন্য উপযুক্ত সেটি আপনার মোবাইলে গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করে ইনস্টল করে নিন।

অনলাইন লোন অ্যাপস

লেজিপে (LazyPay)
বাজাজ ফিনসার্ভ (Bajaj Finserv)
আইডিএফসি ফার্স্ট ব্যাঙ্ক (IDFC FIRST Bank)
জেস্টমানি (ZestMoney)
ধনী (Dhani)
হোমক্রেডিট (HomeCredit)
ক্যাশএ (CASHe)
ক্রেডিটবি (KreditBee)
ফুলারটন ইন্ডিয়া (Fullerton India)
আর্লিসেলারি (EarlySalary)
ফেয়ারমানি (FairMoney)
নীরা (Nira)
ক্রেডি (Credy)
এমপক্কেট (mPokket)
মানিট্যাপ (MoneyTap)
ফ্লেক্সসালারি (FlexSalary)
মানিভিউ (MoneyView)
পেমি ইন্ডিয়া (PayMe India)
স্মার্ট কয়েন (SmartCoin)
লোন ট্যাপ (LoanTap)
এনি টাইম লোন (AnyTimeLoan)
রুপিলেন্ড (RupeeLend)
ক্যাশবিন (CashBean)
ইন্ডিয়ালন্ডস (IndiaLends)

লেজিপে (LazyPay):

এটি হল ভারতে দ্রুত লোন অফার করা জনপ্রিয় অনলাইন লোন এপ্লিকেশন বা অ্যাপগুলির মধ্যে একটি। দ্রুত ঋণ অনুমোদন এবং নিরাপদ অনলাইন ঋণ আবেদন প্রক্রিয়াকরণ অফার করে। এই সহজ অনলাইন ঋণ অ্যাপের মাধ্যমে আপনার ঋণের যোগ্যতা জানতে আপনার শুধু আপনার মোবাইল নম্বরটি প্রয়োজন। এর অফারগুলির মধ্যে রয়েছে সবচেয়ে কম কাগজপত্র এবং একটি সহজ ডিজিটাল প্রক্রিয়া সহ ১,০০,০০০(এক লক্ষ) টাকা পর্যন্ত তাত্ক্ষণিক ব্যক্তিগত লোন।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৫
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ১০০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ১০০০০০টাকা

বাজাজ ফিনসার্ভ (Bajaj Finserv):

ব্যক্তিগত ঋণ প্রদানের অন্যতম প্রধান ব্র্যান্ড হল বাজাজ ফিনসার্ভ, এক দশকেরও বেশি সময় ধরে ভারতে ঋণের চাহিদা পুরণ করছে। দুর্দান্ত সব অফারগুলির সাথে বাজাজ ফিনসার্ভ হল ভারতের সেরা ঋণ অ্যাপগুলির মধ্যে একটি। আপনি আপনার প্রয়োজনীয় কেনাকাটার জন্য শূন্য-সুদের EMI কার্ড ব্যবহার করতে পারেন।
আপনি কোনো জামানত না রেখে Bajaj Finserv থেকে ২৫ লাখ পর্যন্ত ব্যক্তিগত ঋণ নিতে পারেন।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০০৭
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ৩০০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ২৫০০০০০টাকা

আইডিএফসি ফার্স্ট ব্যাঙ্ক (IDFC FIRST Bank):

আপনি যদি একটি গাড়ী বা টু-হুইলার কেনার জন্য লোন নেওয়ার কথা ভাবছেন তাহলে এই লোন অ্যাপটি ডাউনলোড করে ব্যবহার করা উচিত। এখানে লোন প্রক্রিয়াটি তুলনামূলকভাবে সহজ, এবং আপনি কয়েক মিনিটের মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় ঋণের পরিমাণ অনুমোদন পেতে পারেন। পরিশোধের প্রক্রিয়াটিও নমনীয় যা আপনি ১ থেকে ৫ বছরের মধ্যে সহজ EMI-তে ঋণ পরিশোধ করতে পারবেন।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৮
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন-
সর্বোচ্চ- ৪০০০০০০টাকা

জেস্টমানি (ZestMoney):

এই অ্যাপটি তাত্ক্ষণিক ঋণ পাবার ক্ষেত্রে খুবই কার্যারী। এর বিশেষ বৈশিষ্ট হল এখানে ঋণ পেতে আপনার ক্রেডিট স্কোর প্রয়োজন হয় না। ঋণের জন্য আবেদন করতে মাত্র কয়েক মিনিট সময় লাগে। আপনি ইএমআই-তে ডিজিটালভাবে আপনার লোন ফেরত দিতে পারেন এবং আপনার ইএমআইতে ১০০% ক্যাশব্যাক পেতে পারেন।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৫
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ১০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ১০,০০,০০০টাকা

ধনী (Dhani):

এই লোন নেওয়ার অ্যাপস ভারতের ২০২২ সালের শীর্ষ ঋণ অ্যাপগুলির মধ্যে অন্যতম। এখান থেকে আপনি যে কোনো সময়, যে কোনো জায়গায় এবং যেকোনো কারণে ব্যক্তিগত ঋণের জন্য আবেদন করতে পারেন। খুবই অল্পসংখ্যক নথিপত্রে আপনি কোনো সময়েই ঋণ পেতে পারেন। এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হল অ্যাপটি মোবাইলে ইনস্টল করুন এবং তথ্য যাচাইয়ের জন্য আপনার প্যান, আধার নম্বর এবং ঠিকানা প্রদান করুন।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৭
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ১০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ১৫,০০,০০০টাকা

হোমক্রেডিট (HomeCredit):

এটি ভারতের প্রাচীনতম অর্থ ধার দেওয়ার অ্যাপগুলির মধ্যে একটি। আন্তর্জাতিক হোম ক্রেডিট গ্রুপের একটি অংশ, এই কোম্পানির এশিয়া এবং ইউরোপের দশটিরও বেশি দেশে উপস্থিতি রয়েছে।

এই লোন অ্যাপটি আপনার বিভিন্ন ধরনের আর্থিক সমস্যা যেমন শিক্ষা ঋণ বা চিকিৎসা সংক্রান্ত জরুরী অবস্থার সমাধান করতে সাহায্য করার জন্য প্রয়োজনীয় ঋণের পরিমাণ প্রদান করে থাকে। এটি ২,৪০,০০টাকা পর্যন্ত ঋণের পরিমাণ প্রদান করে এবং আপনাকে সহজ EMI-এর মধ্যে ৬ থেকে ৫১ মাস সময়কাল ধরে ঋণ পরিশোধ করতে দেয়।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৭
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ১০,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ২,৪০,০০০টাকা

ক্যাশএ (CASHe):

আপনার বা পরিবারের চিকিৎসা সংক্রান্ত বা যে কোন আর্থিক সংকটের সময় প্রয়োজনীয় অর্থ সংগ্রহ করতে আপনার ফোনে CASHe অ্যাপটি ডাউনলোড করুন। আপনি এটি গুগল প্লে স্টোরের পাশাপাশি অ্যাপল স্টোরেও পেয়ে যাবেন। প্রয়োজনীয় নথি আপলোড করুন। একবার অ্যাপ্লিকেশন অনুমোদিত হলে, মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে আপনার অ্যাকাউন্টে ঋণের পরিমাণ জমা হয়ে যাবে। এছাড়াও আপনি আপনার ঋণের পরিমাণের একটি অংশ সরাসরি আপনার Paytm Wallet-এ স্থানান্তর করতে পারেন।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৬
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ৭,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ৪,০০,০০০টাকা

ক্রেডিটবি (KreditBee):

উঠতি তরুণ পেশাদারদের সাহায্য করার জন্য যে সমস্ত সহজ অনলাইন লোন অ্যাপস তৈরি করা হয়ছে সেগুলির মধ্যে ক্রেডিটবি হল ভারতের অন্যতম সেরা অনলাইন লোন অ্যাপ। যেখান থেকে আপনি ১০০০টাকা থেকে ২,০০,০০০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ঋণ নিতে পারেন। ১৮ বছরের বেশি বয়সী কমপক্ষে ১০,০০০টাকা মাসে উপার্জন করে এমন যে কেউ অ্যাপটি ইনস্টল করে এবং ঋণের জন্য আবেদন করতে পারেন। ক্যামেরা বা ল্যাপটপ কেনার জন্য তরুণ পেশাদারদের মধ্যে এই অ্যাপটি অত্যন্ত জনপ্রিয়।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৫
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ১,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ২,০০,০০০টাকা

ফুলারটন ইন্ডিয়া (Fullerton India):

এই অনলাইন লোন অ্যাপস স্ব-নিযুক্ত এবং বেতনভোগী দুই ধরনের পেশাদারদের ব্যক্তিগত প্রয়োজনে ঋণ প্রদান করে। ঋণ পাবার প্রক্রিয়াগুলি খুব দ্রুত এবং সুবিধাজনক। এটি স্ব-নিযুক্তদের জন্য সেরা ঋণ অ্যাপগুলির মধ্যে অন্যতম। এই অনলাইন ব্যক্তিগত ঋণ অ্যাপটি ঋণ অনুমোদনের ৩০ মিনিটের মধ্যে ঋণ বিতরণ করার দাবি করে। ঋণ পাবার জন শুধুমাত্র আপনার প্রাথমিক তথ্য প্রয়োজন।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০২১
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ৫০,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ২৫,০০,০০০টাকা

আর্লিসেলারি (EarlySalary):

বেতনভোগী কর্মিদের জন্য সহজ ঋণ অফার করে। এই অ্যাপটি আপনার বিভিন্ন প্রয়োজনের জন্য ৫,০০,০০০টাকা পর্যন্ত ঋণের পরিমাণ প্রদান করে।
এবং আপনাকে ২৪ মাসের মধ্যে সহজ EMI-তে ঋণ ফেরত দেওয়ার সুবিধা দেয়। বিস্তারিত জানুন- আর্লি স্যালারি লোন কিভাবে পাওয়া যায়?
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৫
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ৩,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ৫,০০,০০০টাকা

ফেয়ারমানি (FairMoney):

এই টি হলো খুব দ্রুততার সাথে লোন প্রদানকারী অ্যাপ। আপনি এখানে থেকে খুব ছোট এমাউন্ট থেকে শুরু করে বেশ বড় এমাউন্ট পর্যন্ত তাৎক্ষণিক লোন নিতে পারেন। আরো বিস্তারিত জানুন- ফেয়ারমানি লোন অ্যাপ
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৮
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ৭৫০টাকা
সর্বোচ্চ- ৫০,০০০টাকা

নীরা (Nira):

এটি সমগ্র ভারতে একটি দুর্দান্ত অর্থ ঋণ প্রদানকারী অ্যাপ। অ্যাপটি ইনস্টল করে আবেদন করার মাত্র ৩ মিনিটের মধ্যে আপনি ঋণ পাবার জন্য যোগ্য কিনা তা জানতে পারেন। তাদের যোগ্যতার মাপকাঠি মিলে গেলে, আপনাকে ১,০০,০০ এর ক্রেডিট লাইন দেওয়া হবে। আপনি যেকোন সময় টাকার প্রয়োজন হলে প্রায় ৫০০০টাকা বা তার বেশি তুলে নিতে পারেন এবং ৩ থেকে ২৪ মাসের মধ্যে সহজ কিস্তিতে ফেরত দিতে পারেন।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৮
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ৫,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ১,০০,০০০টাকা

ক্রেডি (Credy):

এটি হল ভারতের একটি খুবই ভালো মাপের তাত্ক্ষণিক ঋণ অ্যাপ যা সহজ ঋণ অফার করে। এর সাহায্যে আপনার অনেক ধরনের আর্থিক চাহিদা মেটাতে পারে যেমন আপনার বাড়ি সাজানো, আপনার ক্রেডিট কার্ড বিল পরিশোধ করা, ভ্রমণ সংক্রন্ত খরচ ইত্যাদি। এতে কোনো লুকানো চার্জ নেই এবং আবেদন করার জন্য আপনার কোনো গ্যারান্টার বা জামানত প্রয়োজন নেই।
বেঙ্গালুরু, চেন্নাই, পুনে, মুম্বাই এবং হায়দ্রাবাদে কমপক্ষে ১৫,০০০টাকা উপার্জনকারী বেতনভোগী কর্মচারীদের খুব সহজ ঋণ অফার করে। ঋণের অর্থ ৩ থেকে ৫ মাসের মধ্যে পরিশোধযোগ্য।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৬
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ১০,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ১,০০,০০০টাকা

এমপক্কেট (mPokket):

এইটি কলেজ ছাত্রদের নিকট ভীষণ জনপ্রিয় অনলাইন লোন অ্যাপস। মাস শেষের আগেই পকেটমানি ফুরিয়ে যাওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। আর তাই, কোনো কলেজ ছাত্রকে যেন বন্ধু বা অন্য কারো কাছ থেকে ধার নিতে না হয় তা নিশ্চিত করতে mPokket-এর নির্মাতারা এই বিশেষ অ্যাপটি নিয়ে এসেছে। এই ব্যক্তিগত ঋণ অ্যাপটি বিশেষভাবে কলেজ ছাত্রদের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। ছাত্রদের পকেট মানি প্রদান করে থাকে।
প্রাথমিক ভাবে এখান থেকে ৫০০টাকা ঋণ নেওয়া যায় তবে সময়মতো অর্থপ্রদান করলে এটা বাড়তে থাকে। ঋণের টাকা সরাসরি আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে বা Paytm Wallet-এ জমা হবে। ২ থেকে ৪ মাসের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৬
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ৫০০টাকা
সর্বোচ্চ- ৩০,০০০টাকা

মানিট্যাপ (MoneyTap):

এই অনলাইন লোন অ্যাপস শুধুমাত্র ব্যবহৃত অর্থের উপর সুদ ধার্য করে। এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হল অ্যাপটি মোবাইলে ইনস্টল করুন এবং ঋণের জন্য দরকারী নথিগুলি আপলোড করুন। একবার অনুমোদন পেয়ে গেলে, আপনাকে একটি ক্রেডিট লাইন দেওয়া হবে যা আপনি আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যবহার করতে পারেন।
তবে বর্তমানে এটি ভারতের ব্যাঙ্গালোর, এনসিআর, মুম্বাই, হায়দ্রাবাদ, ইত্যাদি শহরে এদের পরিষেবা প্রদান করে।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৫
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ৩,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ৫,০০,০০০টাকা

ফ্লেক্সসালারি (FlexSalary):

বেতনভুক্ত কর্মচারীদের জন্য এই তাত্ক্ষণিক ঋণ অ্যাপট ডিজাইন করা হয়েছে। অ্যাপটি মোবাইলে ইনস্টল করে সাইন আপ করতে হবে, প্রয়োজনীয় নথি আপলোড করতে হবে এবং অনুমোদনের পর ঋণকৃত অর্থ আপনার অ্যাকাউন্টে স্থানান্তরিত হবে।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৬
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ৪,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ২,০০,০০০টাকা

মানিভিউ (MoneyView):

এই দুর্দান্ত অ্যাপটি আপনাকে প্রয়োজনের সময় ১০,০০০ থেকে শুরু করে ৫,০০,০০০টাকা পর্যন্ত লোন দেয় এবং ৩ মাস থেকে ৫ বছরের মধ্যে আরামদায়ক EMI-তে অর্থ পরিশোধের সময় দেয়।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৪
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ১০,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ৫,০০,০০০টাকা

পেমি ইন্ডিয়া (PayMe India):

কর্পোরেট কর্মচারীদের বিভিন্ন জরুরী প্রয়োজনের জন্য স্বল্পমেয়াদী তাত্ক্ষণিক নগদ ঋণ অফার করে।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৬
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ২,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ২,০০,০০০টাকা

স্মার্ট কয়েন (SmartCoin):

সমাজে সকল শ্রেণীর মানুষের আর্থিক জরুরী অবস্থার জন্য কিছু পরিমান নগদ বা স্বল্পমেয়াদী ঋণ দ্রুততার সাথে প্রদান করে। বিশেষকরে যারা স্বল্পমেয়াদী ঋণ খুঁজছেন এমন লোকেদের জন্য এটি একটি দুর্দান্ত অ্যাপ।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৫
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ৪,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ১,০০,০০০টাকা

লোন ট্যাপ (LoanTap):

এটি একটি ডিজিটাল মানি লেন্ডিং অ্যাপ। এখান থেকে আপনি ১,০০টাকা থেকে ৫,০০,০০০টাকা পর্যন্ত ঋণ নিতে পারেন যা শুধুমাত্র ইলেকট্রনিকভাবে পরিশোধ করতে পারবেন। ঋণের মেয়াদ ৩ থেকে ৩৬ মাস পর্যন্ত হতে পারে। এই ঋণের উপর কোন লুকানো চার্জ নেই।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৬
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ১,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ৫,০০,০০০টাকা

এনি টাইম লোন (AnyTimeLoan):

আপনি যদি একজন বেতনভুক্ত কর্মচারী না হন এবং ঋণ পাওয়া নিয়ে সমস্যায় রয়েছেন। তাহলে আপনার সমস্যা দুর করার জন্য এই অনলাইন লোন অ্যাপস টি খুবই সাহায্যকারী। এটি বেতনভোগী এবং স্ব-নিযুক্ত ব্যক্তি উভয়কেই স্বল্পমেয়াদী ঋণ প্রদান করে। খুবই সহজ শর্তে এরা ঋণ প্রদান করে।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৪
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন-
সর্বোচ্চ- ৫০,০০,০০০টাকা

রুপিলেন্ড (RupeeLend):

এখান থেকে লোন পাওয়ার জন্য আপনাকে খুব বেশি সময় অপেক্ষা করতে হবে না। নতুন গ্রাহকদের দুই ঘণ্টার মধ্যে এবং পুরানো গ্রাহককে দশ মিনিটের মধ্যে ঋণ দিয়ে থাকে বলে দাবি করে। ভারতের বেশিরভাগ প্রধান শহরে এই অ্যাপটি কাজ করে।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৫
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ১০,০০০টাকা
সর্বোচ্চ- ১,০০,০০০টাকা

ক্যাশবিন (CashBean):

অল্প কাগজপত্র এবং সামান্য শর্তে এখান থেকে কয়েক মিনিটের মধ্যে ঋণ পেতে পারেন। মোবাইল অ্যাপ-এর পাশাপাশি এদের ওয়েব সাইড থেকেও লোনের জন্য এপ্লাই করতে পারবেন।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৮
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন- ১,৫০০টাকা
সর্বোচ্চ- ৬০,০০০টাকা

ইন্ডিয়ালন্ডস (IndiaLends):

বর্তমানে প্রিমিয়াম ঋণ দেওয়ার জন্য যসব প্ল্যাটফর্মগুলি রয়েছে তাদের মধ্যে এটি অন্যতম। বেশ কম সুদে ঋণ দিয়ে থাকে এই অ্যাপটি। আপনি এই অনলাইন লোন অ্যাপস বা এপ্লিকেশন থেকে তাত্ক্ষণিক ঋণ পেতে পারেন। আপনি আপনার প্যান কার্ড আপলোড করে অ্যাপে আপনার ক্রেডিট স্কোর পরীক্ষা করতে পারেন, যা আপনাকে আপনার তাত্ক্ষণিক ঋণ নির্বাচন করতে সহায়তা করে।
প্রতিষ্ঠার তারিখ-২০১৬
প্রদেয় ঋণের পরিমাণ-
সর্বনিন্ন-
সর্বোচ্চ- ৫০,০০,০০০টাকা

Share This:
Advertisement

Check Also

Axis Bank Home Loan

অ্যাক্সিস ব্যাংক হোম লোন অফার । Axis Bank Home Loan Best Offer

অ্যাক্সিস ব্যাংক হোম লোন (Axis Bank Home Loan): আপনার এবং আপনার পরিবারের জন্য একটি নিজস্ব …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *