Breaking News
বাংলা শস্য বীমা প্রকল্প

Bangla Shasya Bima Yojona । বাংলা শস্য বীমা প্রকল্প-এ আবেদন প্রদ্ধতি ও বিস্তারিত তথ্য

Bangla Shasya Bima/বাংলা শস্য বীমা প্রকল্প আজকের আলোচ্য বিষয় গুলি হলঃ
শস্য বীমা কাকে বলে। বাংলা শস্য বীমা প্রকল্পে অনলাইন আবেদন পদ্ধতি। পশ্চিমবঙ্গ বাংলা শস্য বীমা যোজনা আবেদন পত্র ডাউনলোড। বাংলার শস্য বীমা সম্পর্কে বিভিন্ন প্রশ্ন ও তার উত্তর।
তো বন্ধুরা চলুন বাংলা শস্য বীমা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য নিয়ে আলোচনা শুরু করা যাক

Bangla Shasya Bima - বাংলা শস্য বীমা

*এছাড়া আরো পড়ুন- প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধি যোজনা

Table of Contents

শস্য বীমা কাকে বলে:

বন্যা, শিলাবৃষ্টি, অতিবৃষ্টি, অনাবৃষ্টি, পোকামাকড়ের আক্রমণ, ঘূর্ণিঝড়, শস্য উৎপাদন না হওয়া, প্রভৃতি কারণে ফসল নষ্ট হয়ে গেলে কৃষক আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে থাকে। আর এই ধরনের আর্থিক ক্ষতি পূরণ করার জন্য যে বীমা পত্র গ্রহণ করা হয় সেটাই শস্যবীমা নামে পরিচিত।

পশ্চিমবাংলার জনদরদি সরকার বাংলার কৃষকদের আর্থিক সুবিধার জন্য বিভিন্ন ধরনের প্রকল্প ও বীমা চালু করেছে। সেগুলির মধ্যে বাংলা শস্য বীমা যোজনা আরেকটি কৃষক উন্নয়নমূলক পদক্ষেপ। রাজ্য সরকার এই যোজনার অন্তর্ভুক্ত কৃষকদের শস্য বীমা প্রিমিয়াম প্রদান করবে। কৃষকদের ফসল বিশেষভাবে খরিপ ও রবি মৌসুমের ফসল নষ্ট হয়ে গেলে তাদের আর্থিক ক্ষতি এই বীমার সাহায্যে প্রদান করা হবে। এবং এই প্রকল্পটি পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যের কৃষি বিভাগ তত্ত্বাবধান করবে। বর্তমান সময়ে যেসব কৃষক আর্থিক দারিদ্র্যের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে এই প্রকল্পটি নিশ্চিতভাবেই তাদের সাহায্য করবে।

বাংলা শস্য বীমা প্রকল্পের বৈশিষ্ট্য গুলি:

এই প্রকল্পে অনেকগুলো বৈশিষ্ট্য রয়েছে যেগুলো সত্যিকারেই দীর্ঘমেয়াদে কৃষকদের জন্য খুবই সাহায্যকারী যেমন
• বাংলা শস্য বীমা প্রকল্পটি হল সরকার কর্তৃক উপস্থাপিত ফসল বীমা প্রকল্প
• ভারতের কৃষি বীমা কোম্পানি এই বীমা অর্থ প্রদান করবে
• পশ্চিমবঙ্গের প্রায় সকল জেলা‌ই এই প্রকল্পের আওতায় রয়েছে
• এই প্রকল্পে রাজ্য সরকার সম্পূর্ণ প্রিমিয়াম এর অর্থ প্রদান করবে

কোন কোন ক্ষেত্রে ফসল ক্ষতির জন্য বীমা কভারেজ দেওয়া হবে:

>ফসল রোপনের সময় যেকোনো ধরনের ক্ষতির জন্য
>চাষের সময় ক্ষতিগ্রস্ত হলে
>ফসল খেতে থাকা অবস্থায় ও কাটার পরে ক্ষতিগ্রস্ত হলে
>প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে ফসল ক্ষতি হয়েছে
>বীমার পরিমাণ কৃষি জমির উপর ভিত্তি করে গণনা করা হবে

নিম্নলিখিত ফসলগুলো শস্য বীমা প্রকল্পের আওতায় আনা হয়েছে:

আমন ধান
আউশ ধান
পাট
গম এবং ভুট্টা
বজরা ও তেলবীজ
বার্ষিক বাণিজ্যিক ও বার্ষিক হার্টিকালচার ফসল
অন্যান্য ফসল (ডাল সরিষা তিল চিনাবাদাম প্রভৃতি‌)
আলু এবং আখ এই দুইটি বাণিজ্যিক ফসলের জন্য কৃষককে সবচেয়ে বেশি ৪.৮৫ শতাংশ প্রিমিয়াম জমা করতে হবে বাকি প্রিমিয়াম রাজ্য সরকার বহন করবে।

বাংলা শস্য বীমা প্রকল্প আবেদনের জন্য কি কি শর্ত প্রয়োজন:

• কৃষককে পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে
• কৃষকের নিজের নামে জমি থাকতে হবে তবে কৃষক যদি ভাগচাষী অথবা জমি ভাড়া নিয়ে চাষ করে থাকেন তারাও এই শস্যবীমা প্রকল্পের সুবিধা পাবেন বলে রাজ্য সরকার ঘোষণা করেছেন।
• আবেদনকারী কৃষক পুরুষ বা মহিলা হতে পারেন তবে তার বয়স কমপক্ষে ১৮ বছর হতে হবে
• কৃষকের আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, ও ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার থাকা প্রয়োজন
• কৃষক যদি অন্য কোন ফসল বীমা প্রকল্প আবেদন করে থাকে সে ক্ষেত্রে বাংলা শস্য বীমা প্রকল্পের আবেদন করতে পারবেন না

বাংলা শস্য বীমা যোজনায় আবেদন প্রদ্ধতি:

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কৃষি দপ্তরের অধীনে এই বাংলা শস্য বিমা নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে হবে অফলাইনে।
অনলাইনে আবেদন করা সুবিধা এখন পর্যন্ত সরকারি তরফ থেকে দেওয়া হয়নি। অনলাইনে আপনি রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন যাতে পরবর্তীকালে আপনি ফার্মার কর্ণারে গিয়ে আপনার আবেদনটির স্ট্যাটাস চেক করতে পারবেন ও সার্টিফিকেট ডাউনলোড করতে পারবেন। আর আপনার শস্যের কোন ক্ষতি হলে ক্ষতিপূরণের জন্য আবেদন করতে পারবেন। কত টাকা ইন্সুরেন্স সেটির হিসাব বের করতে পারবেন। আর এই অনলাইন রেজিস্ট্রেশন আপনি অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে করতে পারবেন অথবা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস “BSB” প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করে সেখানে গিয়েও করতে পারবেন।
আর এই বাংলা শস্য বিমা তে আবেদন করার জন্য একটি নির্দিষ্ট ফরম পূরণ করতে হবে ও আপনার জমি সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য প্রদান করতে হবে যেমন জমির পরিমান, খতিয়ান পর্চা, পাট্টা, দলিলের জেরক্স, প্রভৃতি আর ভাগচাষী কিংবা জমি ভাড়া নিয়ে চাষ করা হলে সেই সংক্রান্ত কাগজপত্র জমা করতে হবে। দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে আবেদন করতে পারেন অথবা গ্রাম পঞ্চায়েত, কিষাণ মান্ডি বা ব্লক অফিসে। আবেদন পত্র বা ফর্ম আপনি নিকটবর্তী কৃষি দপ্তর অফিসে থেকে পেয়ে যাবেন অথবা নিচে দেওয়া লিংক হতে ডাউনলোড করতে পারেন

বাংলার শস্য বীমা ফর্ম pdf ডাউনলোড

অনলাইন রেজিস্ট্রেশন করার জন্য নিচে দেওয়া প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করুন:

• প্রথমে এই প্রকল্পে অফিশিয়াল ওয়েব পেজে যেতে হবে (https://banglashasyabima.net/) বা এখানে ক্লিক করুন
• এরপর আপনার সামনে যে ওয়েব পেজটি ওপেন হবে সেখানে রেজিস্ট্রার নামক অপশনে ক্লিক করুন

বাংলা শস্য বীমা প্রকল্প রেজিট্রেশন

• এবার ‘রেজিস্টার নিউ ইউজার’ নামে নতুন একটি পেজ ওপেন হবে
• সেখানে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য সঙ্গে ইমেইল, পাসওয়ার্ড, ফার্স্ট নেম, লাস্ট নেম, মোবাইল নম্বর ও একসেপ্ট একসেপ্ট আওয়ার প্রাইভেসি পলিসি এন্ড কাস্টমার এগ্রিমেন্ট তে টিক দিয়ে সাইন আপ বটনে ক্লিক করে রেজিস্ট্রেশন করে নিন ।

Bangla Shasya Bima / বাংলার শস্য বীমা এই যোজনা সম্পর্কিত কিছু প্রশ্ন ও উত্তর-

কিভাবে কৃষক জানতে পারবে যে তাদের ফসল বীমার আওতায় রয়েছে?

যে কৃষক ফসল বীমার জন্য আবেদন করেছেন তিনি বিএসবি পোর্টাল (https://banglashasyabima.net/) লগইন করে দেখতে পারবেন। সেখানে তিনি ভোটার কার্ড নম্বর এন্টার করে কৃষক কর্নারে তার ফসলের বিবরণ দেখতে পারেন।

কৃষকের ফসল ক্ষতি হলে সেই তথ্য কোথায় গিয়ে জানাবে?

অনলাইনে অথবা বীমা কোম্পানির টোল ফ্রি নম্বর এর মাধ্যমে অথবা ই-মেইলের মাধ্যমেও কৃষক তার ফসলের ক্ষতির কথা জানাতে পারেন অথবা ফসল ক্ষতির কথা ব্লকের সরকারি কৃষি পরিচালককে জানতে পারে।

বীমা সংক্রান্ত ব্যাপারে কৃষকের কোন অভিযোগ থাকলে কোথায় জানাবে?

যে কৃষকদের ফসলের বীমা করেছেন এবং তা নিয়ে কোনো ধরনের অভিযোগ থাকলে সেটা তিনি বিএসবি পোর্টালে ফার্মার কর্নারে অথবা বীমা কম্পানির টোল ফ্রি নাম্বার অথবা ইমেইল আইডির মাধ্যমে তিনি তাঁর অভিযোগ দায়ের করতে পারেন এছাড়া অফলাইনে তিনি কৃষক অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাছে অভিযোগ দায়ের করতে পারেন, ব্লক কৃষি পরিচালক।
Direct Helpline Number – 8336900632, 8373094077, 8336957181
For any Insurance claim related query- 18005720258 (10 am to 6 pm),
মেইল- ro.kolkata@aicofindia.com

Share This:
Advertisement

Check Also

গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্ন-উত্তর

আবাস প্লাস যোজনায় গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্ন-উত্তর । Pradhan Mantri Awas Yojana Gramin List AtoZ Information

Pradhan Mantri Awas Yojana Gramin (প্রধান মন্ত্রী গ্রামীন আবাস যোজনা) সংক্ষেপে পিএমএওয়াই(জি) PMAY(G) বা আবাস …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *