Breaking News
e-Shram Card apply

e-Shram Card অনলাইন রেজিস্ট্রেশন ২ লক্ষ টাকার বিমা । অসংগঠিত শ্রমিক ই-শ্রম কার্ড পাওয়ার জন্য কিভাবে আবেদন করবেন

e-Shram Card অনলাইন রেজিস্ট্রেশন: ভারত সরকার অসংগঠিত শ্রমিকদের জন্য যুগান্তকারী নতুন ব্যবস্থা e-Shram পোর্টাল চালু করেছে। এই পোর্টালের মাধ্যমে অসংগঠিত ক্ষেত্রের প্রায় ৩৮ কোটি শ্রমিক উপকৃত হবে। কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রী ভূপেন্দ্র যাদব ঘোষনা করেছেন এই পোর্টাল নিবন্ধন করা প্রত্যেক শ্রমিককে e-Shram Card প্রদান করা হবে। আর এই কার্ডের সাহায্যে নিবন্ধিত শ্রমিকরা যে কোন সময়ে দেশের যেকোন স্থানে বিভিন্ন সামাজিক নিরাপত্তা প্রকল্পের সুবিধা ও সরকারি সুবিধা নিতে পারবে। এছাড়া কোন শ্রমিকের দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলে PMSBY এর অধীনে ২ লক্ষ টাকার একটি দুর্ঘটনা বীমা কভারেজ পাবে। এছাড়া কোনো শ্রমিক পূর্ণ বিকলাঙ্গ হলে ২ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ পাবে বা কোনো শ্রমিক আংশিক বিকলাঙ্গ হলে ১ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ পাবে।

*এছাড়া পড়ুন- দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে কি কি সুবিধা পাওয়া যাবে

ই-শ্রম কার্ড অনলাইন রেজিস্ট্রেশন

অসংগঠিত শ্রমিক e-Shram পোর্টাল সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানুন।

Table of Contents

অসংগঠিত শ্রমিক কারা?

ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষক
কৃষি শ্রমিক
ভাগচাষী
জেলে
পশুপালন কারী
বিড়ি শ্রমিক
লেভেল অফ প্যাকিং
ভবন এবং নির্মাণ শ্রমিক
চামড়া শ্রমিক
তাঁতি
কাঠমিস্ত্রি
লবণ শ্রমিক
ইটভাটা ও পাথর খনির শ্রমিক
করাত কলের শ্রমিক
ধাত্রীরা
গৃহের কাজ করে যেসব শ্রমিক, গৃহকর্মী
নাপিত
সবজি ও ফল বিক্রেতা
সংবাদপত্র বিক্রেতা
রিক্সা চালক
অটোচালক
সেরিকালচার শ্রমিক
ট্যানারি শ্রমিক
সাধারণ পরিষেবা কেন্দ্র
এম এন জি আর জি এ workers
আশা কর্মীরা
দুধ ওয়ালা কৃষক
পরিযায়ী শ্রমিক

ই-শ্রম কার্ড (e-Shram Card) আবেদনের জন্য যোগ্যতা:

>অসংগঠিত শ্রমিকের বয়স ১৬ থেকে ৫৯ বছরের মধ্যে হতে হবে (৩০-০৮-১৯৬১ হইতে ২৯-০৮-২০০৫)
>নিবন্ধনকারী শ্রমিক আয়কর প্রদানকারী হওয়া উচিত নয়
>নিবন্ধনকারী ইউ পি এফ ও / ই এস আই সি / এন পি এস র সদস্য হওয়া উচিত নয়
>নিবন্ধনকারী অবশ্যই অসংগঠিত শ্রমিক শ্রেণীর হতে হবে

কে বা কারা এই ই-শ্রম কার্ড পোর্টাল নিবন্ধন করতে পারবে না:

যারা সংঘটিত বা সরকারি খাতের কর্মচারী, যারা নিয়মিত বেতন, পেনশন, গ্র্যাচুইটি, ছুটি ও সামাজিক নিরাপত্তাসহ অন্যান্য সুবিধা পান তারা এই পোর্টাল নিবন্ধন করতে পারবেন না।

ই-শ্রম কার্ড এই পোর্টাল নিবন্ধন করতে হলে নিম্নলিখিত ডকুমেন্টস গুলির প্রয়োজন:

১।আধার নম্বর
২।আধারের সঙ্গে সংযুক্ত মোবাইল নম্বর
৩।ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর ও আইএফএসসি কোড।

e-Shram পোর্টালে নিবন্ধন বা রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া:

• ব্রাউজার ওপেন করে গুগলে টাইপ করুন eshram.gov.in বা এখানে ক্লিক করুন
• e-shram-এর ওয়েব সাইডটি ওপেন হবে সেখানে REGISTER on e-Shram বাটনে ক্লিক করুন
নতুন একটি পেজ ওপেন হবে পেজটি দেখতে নিচে দেয়া নমুনা মত-

REGISTER on e-Shram

• এই পেজের সেলফ রেজিস্ট্রেশনে (Self Registration) আধার লিঙ্ক করা মোবাইল নম্বরটি লিখতে হবে
• এরপর ক্যাপচা কোডটি পাশের খোপে টাইপ করুন
• ই পি এফ ও বা ই এস আই সি তে ইয়েস বা নো সিলেক্ট করুন
• তারপর সেন্ড ওটিপি তে ক্লিক করুন
• পরবর্তী পেজে আপনার কার্ডের সমস্ত ডিটেইলস শো করবে যেমন-নাম,বাবার নাম,ঠিকানা, জন্ম তারিখ, ছবি ইত্যাদি
• এরপর নিচে Continue To Enter Others Details-এ ক্লিক করুন
• পরের পেজে আপনার মোবাইল নাম্বার, জিমেইল আইডি, বাবার নাম,বিবাহিত কি না,রক্তের গ্রুপ ইত্যাদি সিলেক্ট করে Save & Continue-তে ক্লিক করুন।
• এরপর রাজ্যের নাম সিলেক্ট করুন,নিজের জেলার নাম,ঠিকানা, গ্রাম, পিন কোর্ড ইত্যাদি টাইপ করার পর নিচে Save & Continue এ ক্লিক করুন।
• এরপর শ্রমিকের শিক্ষাগত যোগ্যতা, মাসিক ইনকাম,শ্রমিক কিধরনের কাজ করে ইত্যাদি বসিয়ে দিয়ে Save & Continue এ ক্লিক করুন।
• এরপর শ্রমিকের নিজস্ব ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নাম্বার,নাম,ব্যাঙ্কের নাম,IFSC Code,শাখার নাম ইত্যাদি টাইপ করতে হবে।
• এরপর সমস্ত তথ্যের একবার Preview দেখতে পারবেন, যদি সবকিছু ঠিকমত করা হয়েছে মনে হয় তাহলে নিচে T&C ক্লিক করে সাবমিটে ক্লিক করলেই e-Shram Card কার্ডটি পেয়ে যাবেন এবং কার্ডে ১২ সংখ্যার UAN Number দেখতে পাবেন।

আধার সংযুক্ত মোবাইল নাম্বার না থাকলে কি করণীয়?

**আধার সংযুক্ত মোবাইল নাম্বার না থাকলে অসংগঠিত শ্রমিকরা বিনামূল্যে নিবন্ধন করতে পারবেন। eshram.gov.in এর তথ্য অনুযায়ী নিকটবর্তী সিএসসি (CSC) এ যান এবং বায়োমেট্রিক প্রমাণীকরণ যেমন আঙ্গুলের ছাপ, চোখের পুতলি, প্রমাণীকরণ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নিবন্ধন করুন।

e-Shram পোর্টালে রেজিস্ট্রেশন করার পর ভুল সংশোধন বা কার্ড ডাউনলোড করবেন কিভাবে?

আপনি যদি e-Shram পোর্টালে রেজিস্ট্রেশন করে থাকেন তাহলে কিভাবে কার্ডটি ডাউনলোড করতে পারবেন অথবা ই-শ্রম কার্ডে যদি কিছু ভুল থাকে তাহলে কিভাবে তা সংশোধন করা যায় তা নীচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

১) ই শ্রম কার্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটি মোবাইল অথবা ডেক্সটপে যেকোন ওয়েব ব্রাউজারে ওপেন করুন। বা এখানে ক্লিক করুন
২) এরপর E Shram Card Update Option -এ ক্লিক করুন। নীচে নমুনা দেওয়া হল-

e-Shram কার্ড ডাউনলোড


৩) পরের পেজে মোবাইল নাম্বার এন্টার করুন এবং ক্যাপচা কোডটি বসিয়ে সেন্ড ওটিপিতে ক্লিক করুন।
৪) এরপর আপনার মোবাইলে একটি ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড অর্থাৎ OTP আসবে তা এন্টার করে এগিয়ে যান।
৫) এরপর আধার কার্ড নাম্বার এন্টার করে এগিয়ে যেতে হবে।
৬) এরপর আপনার সামনে দুটো অপশন শো হবে, একটি E Shram UAN Card Download আর একটি Update Profile এর।
৭) এরপর যে সমস্ত ইনফরমেশন ভুল রয়েছে তা সঠিক ভাবে এন্টার করে সংশোধন করে নিন ও কার্ডটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

*আরো পড়ুন- ই-শ্রম কার্ড ও লেবার কার্ডের সুবিধাগুলি কি কি । দুটি কার্ডের পার্থক্য কি?

ইউ এ এন (UAN) কি?

ইউনিভার্সাল অ্যাকাউন্ট নাম্বার হলো একটি ১২ ডিজিটের নম্বর যা প্রত্যেকটি অসংগঠিত শ্রমিক কে ই-শ্রম পোর্টাল নিবন্ধন এর পর দেওয়া হয়। ইউ এ এন নম্বরটি একটি স্থায়ী সংখ্যা অর্থাৎ একবার নিবন্ধন করা হলে এটি আজীবন অপরিবর্তিত থাকবে।

ই-শ্রম রেজিস্ট্রেশন করার জন্য আয়ের কোন নির্দিষ্ট সীমা আছে কি?

অসংগঠিত শ্রমিক হিসেবে এখানে নিবন্ধনের জন্য নির্দিষ্ট কোনো আয়ের সীমা নেই তবে আয়কর প্রদানকারী হওয়া উচিত নয়।

ই-শ্রম নিবন্ধন করার জন্য যোগ্যতার মাপকাঠি আছে কি?

যেকোনো অসংগঠিত শ্রমিক ১৬ থেকে ৫৯ বছর বয়সী ই-শ্রম পোর্টাল নিবন্ধন করার যোগ্য

একজন অসংগঠিত শ্রমিক যখন এই পোর্টালে নিবন্ধন করবে তখন সে কি কি সুবিধা পাবে?

কেন্দ্রীয় সরকার এই পোর্টালটি তৈরি করেছে যেটি আধার নাম্বার এর সাথে যুক্ত অসংগঠিত শ্রমিকদের একটি কেন্দ্রীয় ডাটাবেজ হবে। শ্রমিক পি এম এস বি ওয়াই (PMSBY) এর অধীনে ২ লক্ষ টাকার একটি দুর্ঘটনা বীমা কভারেজ পাবে। ভবিষ্যতে অসংগঠিত শ্রমিকদের সকল সামাজিক নিরাপত্তা সুবিধা এই পোর্টালের মাধ্যমে পৌঁছে দেওয়া হবে। জরুরী এবং মহামারীর মতো পরিস্থিতিতে এই সকল অসংগঠিত শ্রমিকদের প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের জন্য এই ডাটাবেজ ব্যবহার করা হবে।

ই-শ্রম রেজিস্ট্রেশন করার জন্য শ্রমিককে কি কোন চার্জ দিতে হবে?

ই-শ্রম পোর্টাল নিবন্ধন সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। শ্রমিকদের কোন নিবন্ধনকারী সংস্থাকে কোন চার্জ দিতে হবে না

রেজিস্ট্রেশনের পর শ্রমিকের ব্যাংক একাউন্ট থেকে কি কোন টাকা কাটা হবে?

না, সামাজিক নিরাপত্তা স্কিমের আওতায় ঝামেলাবিহীন সুবিধা কেন্দ্র । রাজ্য সরকার কর্তৃক শ্রমিকের একাউন্টে সরাসরি কোনো সুবিধা দেওয়ার জন্য ব্যাংকের বিবরণ নেওয়া হচ্ছে

ই-শ্রম কার্ড এর মেয়াদকাল কত দিন?

এটি একটি স্থায়ী কার্ড এবং আজীবন বৈধ

এই ইউ এ এন (UAN) কার্ড টিকে কি নবীকরণ করতে হবে?

অসংগঠিত শ্রমিকদের নিয়মিত তাদের বিবরণ মোবাইল নাম্বার, বর্তমান ঠিকানা, ইত্যাদি আপডেট করার জন্য ই-শ্রম কার্ড নবীকরণ করার প্রয়োজন নেই যাতে তার অ্যাকাউন্ট সক্রিয় থাকে সেজন্য তাকে বছরে অন্তত একবার তার অ্যাকাউন্ট আপডেট করতে হবে

কিভাবে শ্রমিকরা এই পোর্টাল ও তাদের বিবরণ আপডেট করতে পারে?

ই-শ্রম অফিশিয়াল পোর্টালে গিয়ে অথবা সিএসসির মাধ্যমে কর্মীরা তাদের বিবরণ আপডেট করতে পারে

শ্রমিকরা ই-শ্রম কোন কোন বিবরণ আপডেট করতে পারে?

একবার নিবন্ধিত হয়ে গেলে একজন কর্মী তার বিশেষ বিবরণ যেমন মোবাইল নম্বর, বর্তমান ঠিকানা, পেশা ও শিক্ষাগত যোগ্যতা, দক্ষতা ধরন, পারিবারিক বিবরণ, ইত্যাদি আপডেট করতে পারে ই-শ্রম পোর্টালে বা নিকটবর্তী সিএসসি তে।

Share This:
Advertisement

Check Also

গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্ন-উত্তর

আবাস প্লাস যোজনায় গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্ন-উত্তর । Pradhan Mantri Awas Yojana Gramin List AtoZ Information

Pradhan Mantri Awas Yojana Gramin (প্রধান মন্ত্রী গ্রামীন আবাস যোজনা) সংক্ষেপে পিএমএওয়াই(জি) PMAY(G) বা আবাস …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *