Breaking News
Instant PAN card apply with Aadhar

Instant PAN card apply with Aadhar । বিনামুল্যে প্যান কার্ড অনলাইনে তৈরী করুন মাত্র ১০ মিনিটে । Get Pan Card within 2 Minutes Online Apply

মাত্র ৫ মিনিটে প্যান কার্ড আপনারা অনলাইনে কিভাবে তৈরি করবেন। হ্যাঁ বন্ধুরা, আবেদন করার ৫ থেকে ১০ মিনিটের মধ্যেই আপনারা আপনাদের প্যান কার্ড কিভাবে হাতে পাবেন তাও আবার অনলাইনে বাড়িতে বসে। এই পোস্ট হইতে ২০২১ সালের এই নতুন পদ্ধতি সম্বন্ধে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেব। একেবারে নতুন ওয়েবসাইট থেকে ইনস্ট্যান্ট প্যান কার্ডের জন্য কিভাবে আবেদন করবেন এবং আবেদন করার পর প্যান কার্ড কিভাবে ডাউনলোড করবেন। এবার থেকে প্যান কার্ড তৈরির জন্য আর কোন এজেন্ট বা কয়েক পৃষ্ঠা ফরম ফিলাপ করতে হবে না। আয়কর বিভাগ এক বিশেষ পরিষেবা নিয়ে হাজির হয়েছে যার মাধ্যমে আপনার আধার কার্ড থাকলে বিনামূল্যে প্যান কার্ড পেতে পারেন। আর এই প্যান কার্ড অথবা পার্মানেন্ট অ্যাকাউন্ট নাম্বার খুব বেশি হলে দশ মিনিটের মধ্যেই পিডিএফ ফরম্যাটে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন এবং এটি অ্যাক্টিভ ভ্যালিড প্যান কার্ড আর আপনি চাইলে সেটাকে প্রিন্ট আউট করিয়ে সাথে রেখে দিতে পারেন।

*এছাড়া আরো পড়ুন- লোন সংক্রান্ত তথ্যের জন্য এখানে ক্লিক করবেন

প্যান কার্ড বানানো ও ডাউনলোড:

মাত্র ৫ থেকে ১০ মিনিটে অনলাইনে প্যান কার্ডের জন্য আবেদন করে এবং সেই প্যান কার্ডটি ডাউনলোড কিভাবে করতে পারবেন সেটার স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি নিচে দেওয়া হল:

১। প্রথমে https://www.incometax.gov.in/iec/foportal/ লিখে গুগলে সার্চ করুন অথবা এখানে ক্লিক করুন
২। এরপর যে পেজটি ওপেন হবে সেখানে আওয়ার সার্ভিস (Our Services) থেকে ইনস্ট্যান্ট ই-প্যান (Instant E-PAN) এই অপশনটিতে ক্লিক করুন, এই অপশনটি না পেলে শো মোর (Show More) ক্লিক করে ইনস্ট্যান্ট ই-প্যান অপশন টি ক্লিক করে পরবর্তী পেজ ওপেন করে নিন। নীচে দেওয়া ছবিটি দেখুন।

৩। এখানে দুটো অপশন পাওয়া যাবে একটি হল ‘গেট নিউ ই-প্যান’ (Get New e-PAN) আর আরেকটি হলো ‘চেক স্ট্যাটাস/ ডাউনলোড প্যান’ (Check Status/ Download PAN) এবার নতুন আবেদনের জন্য ‘গেট নিউ ই-প্যান’ অপশনটিতে ক্লিক করুন।

৪। এবারে একটি নতুন পেজ ওপেন হবে সেখানে ১২ সংখ্যার আধার নম্বর দিয়ে ‘আই কনফার্ম দ্যাট’ বক্সটি চেক করে কন্টিনিউ তে ক্লিক করুন।

৫। এরপর পরবর্তী পেজে ওটিপি ভ্যালিডেশন বক্সটি চেক করে কন্টিনিউ তে ক্লিক করুন।
৬। পরবর্তী পেজে আধার কার্ডের সাথে রেজিস্টার্ড মোবাইল নম্বরের যে ওটিপি যাবে সেই ছয় সংখ্যার ওটিপি নাম্বারটি বসিয়ে দিয়ে নিচের চেকবক্সে টিক দিয়ে continue-তে ক্লিক করুন
৭। এবার পরবর্তী পেজটিতে আপনার আধার সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য প্রদর্শিত হবে, যেমন আপনার নাম, ডেট অফ বার্থ, মোবাইল নম্বর, যদি ইমেইল আইডি থাকে তবে ইমেইল আইডি, অ্যাড্রেস সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আই একসেপ্ট দ্যাট বক্সে টিক দিয়ে কন্টিনিউ তে ক্লিক করুন।
৮ পরবর্তী এবং শেষ ধাপে আপনার অ্যাপ্লিকেশনটি সাকসেসফুলি সাবমিট হয়ে গেছে দেখাবে, সেখানে অ্যাকনোলেজেমেন্ট নাম্বার প্রদর্শিত হবে। এই নাম্বারটি কপি করে রেখে দিন, পরবর্তীতে স্ট্যাটাস চেক ও প্যান কার্ড ডাউনলোড করার জন্য প্রয়োজন হতে পারে।
আর আবেদনটি করার সময় যদি কোনো ভুল হয়ে থাকে সেটা ঠিক করার জন্য ‘গো টু লগইন’ অপশন এ ক্লিক করে ভুল সংশোধন করে নিন।

ই-প্যান আবেদনের কিছু নিয়মাবলী:

ই-প্যান আবেদনের সময় কয়েকটি নিয়মের কথা বলা হয়েছে সেগুলি হলঃ

>আগে কখনো আপনার প্যান কার্ড তৈরি হয়নি।
>আপনার মোবাইল নম্বর আধারের সঙ্গে সংযুক্ত করা আছে ও মোবাইল নম্বরটি সক্রিয় আছে।
>আপনার আধার কার্ডে সম্পূর্ণ জন্ম তারিখ (DD/MM/YY) থাকতে হবে।
>ই-প্যান নাম্বারের জন্য আবেদনের তারিখ অনুযায়ী আপনি নাবালক নন।

নতুন প্যান কার্ড অথবা পার্মানেন্ট অ্যাকাউন্ট নাম্বার ডাউনলোড পদ্ধতি:

এবার দেখে নেয়া যাক যখন আমাদের অ্যাপ্লিকেশনটি সাকসেসফুলি সাবমিট হয়ে যাওয়ার পর কিভাবে প্যান কার্ড ডাউনলোড করব

• আবারও আমরা হোম পেজের ইনস্ট্যান্ট ই-প্যান অপশনটিতে ক্লিক করব। বা উপরে দেওয়া ১। ও ২। অপশনটি ফলো করুন।
• এবার পরবর্তী পেজে চেক স্ট্যাটাস /ডাউনলোড প্যান অপশনে continue-তে ক্লিক করবেন।

• পরবর্তী পেজে ১২ সংখ্যার আধার কার্ড নাম্বারটি এন্টার করে কন্টিনিউ তে ক্লিক করবেন।

• পরবর্তী পেজে আধার কার্ডের সাথে রেজিস্টার মোবাইল নম্বরে ছয় সংখ্যার ওটিপি সেন্ড হবে সেই ও টি পি এন্টার দ্য ওটিপি র ঘরে বসিয়ে চেক বক্সে টিক দিয়ে কন্টিনিউ তে ক্লিক করব এবং ৫ থেকে ১০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে।

• পরবর্তী পেজ থেকে ই-প্যান পিডিএফ ফরম্যাটে ডাউনলোড করে নিন। এবং প্রয়োজনে প্রিন্ট আউট বের করে নিন।

তো বন্ধুরা, এই পোস্ট হইতে আপনারা ২০২১ সালে কিভাবে নতুন পদ্ধতিতে প্যান কার্ডের জন্য আবেদনের প্রায় সঙ্গে সঙ্গে প্যান কার্ডটি পেয়ে যাবেন তার পদ্ধতি তুলে ধরা হলো। আশা করি এই পোস্টটি আপনাদের উপকারে লাগবে আর উপকৃত হলে অবশ্যই বন্ধুদের সঙ্গে পোস্টটি শেয়ার করুন।

ই-প্যান কার্ড আবেদনের সময় ছবি কোথায় দেবো

না, এখানে কোন ছবি আপলোডের প্রয়োজন নেই আধার কার্ডে যে ছবিটি আছে সেটাই অটোমেটিক চলে আসবে

এখান থেকে প্যান কার্ড বানানোর জন্য কোন টাকা পয়সা লাগবে

না, এটি সম্পূর্ণভাবে বিনামূল্যে। তবে প্যান কার্ড থেকে পোস্ট অফিসের মাধ্যমে আপনার বাড়িতে আনার জন্য নির্ধারিত ফ্রি দিতে হবে

আধার কার্ডের সঙ্গে মোবাইল নম্বর সংযুক্ত না থাকলে কি এই পদ্ধতিতে প্যান কার্ড তৈরি হবে না

না, আধারের সঙ্গে মোবাইল নাম্বার রেজিস্টার করা না থাকলে এই পদ্ধতিতে প্যান কার্ড তৈরি হবে না

আধার কার্ডে বয়সের জায়গায় শুধু সাল আছে তাহলে কি এই পদ্ধতিতে প্যান কার্ড তৈরি করা যাবে

না এখানে আপনার পুরো ডেট অফ বার্থ লাগবে মানে সালের সাথে জন্মের তারিখ ও মাস।

এভাবে প্যান কার্ডের আবেদন কি ফোন থেকে করতে পারব

হ্যাঁ, নেট সংযোগকারী যেকোন মোবাইল থেকে করতে পারবেন

অফিশিয়াল ভাবে যে প্যান কার্ড পোস্ট অফিসের মাধ্যমে পাওয়া যায় সেটা কি এখানে থেকে পাব

হ্যাঁ, নির্ধারিত ফ্রি প্রদান করে প্যান কার্ডটি পোস্ট অফিসের মাধ্যমে বাড়িতে পেতে পারেন।

Share This:
Advertisement

Check Also

passport

অনলাইনে পাসপোর্ট আবেদন করার পদ্ধতি। কিভাবে খুব সহজে অনলাইনে পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করবেন। How to apply for passport online 2023।

অনলাইনে পাসপোর্ট আবেদন :- বন্ধুরা আমাদের সকলেরই প্রিয় একটি সুপ্ত ইচ্ছা হলো বিদেশ ভ্রমণ। এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *