Breaking News
Paytm Loan (পেটিএম লোন)

Paytm loan kivabe Paoya Jai । পেটিএম লোন কিভাবে নিবেন? Paytm লোন পাওয়ার সহজ উপায়

লোনদরকার (loandarkar): Paytm loan (পেটিএম লোন) সম্পর্কে বলার আগে কয়েকটি কথা বলা খুব প্রয়োজন যে বন্ধুরা, আজকের সময়ে, আপনার সাথে এমনটাই হয়ত ঘটছে যে আপনার ব্যয় আপনার মাসের উপার্জনের চেয়ে বেশি হচ্ছে। আপনার কষ্টার্জিত অর্থ কোথায় কিভাবে ব্যায় হয়ে যাচ্ছে তা আপনি বুঝতে পারছেন না, কারণ বর্তমান সময়ে যেভাবে মুদ্রাস্ফীতি বাড়ছে, তাতে আপনি এখনই যতই উপার্জন করেন না কেন বিশেষ অর্থ সাশ্রয় হচ্ছে না। এইরকম পরিস্থিতিতে, বন্ধুরা বর্তমান সময়ে আমাদের সাথে এই ঘটনা প্রায়শই ঘটে চলেছে। আমরা মাসে যা আয় করেছি তা মাসের শেষের আগেই ব্যয় হয়ে যাচ্ছে এবং আপনি বড্ড অসহায় বোধ হচ্ছে আর কিছুই বুঝতে উঠতে পারছেন না। এমত অবসস্থায় আমরা কি আর করতে পারি কারন অর্থ ছাড়া কিছুই সম্ভব নয়।
এইরকম পরিস্থিতিতে আপনার মাথায় একটাই চিন্তা আসে যে কোনও বন্ধুর কাছ থেকে কিছু টাকা ধার করার, তখন আপনি আপনার বন্ধুর কাছে যান এবং সেখানে যাওয়ার পরে আপনি জানতে পারেন যে তার পরিস্থিতি আপনার মতো, এরপর হয়তো আপনি আপনার অন্য বন্ধুর কাছে যান এবং গিয়ে তাকে আপনার আর্থিক সমস্যার কথা বললেন এবং কিছু দিনের জন্য কিছু টাকা ধার চাইলেন কিন্তু সেখানেও ব্যর্থতার সন্মুখিন হলেন। পরিস্থিতি ক্রমশঃ জটিল হয়ে উঠছে, আপনি বুঝতেই পারছেন না যে এমত অবস্থায় আপনার কি করণীয়? কোথা থেকে অর্থ আসবে।
তো বন্ধুরা আমি বলবো, আপনি যখন এই ব্লগে এসেছেন তখন আপনাকে আর উদ্বিগ্ন হতে হবে না। কারণ এখন এই পোস্টে আমি আপনাকে অনলাইন ঋণ সম্পর্কে বলতে যাচ্ছি, যা আপনার অর্থ সমস্যাকে বেশ খানিকটা কমিয়ে দেবে।
এখন আমি এখানে আপনাদের সকলকে বলতে চাই যে আপনারা অনেক ঋণ অ্যাপ্লিকেশন এবং ঋণ সংস্থাগুলির অনলাইন ঋণ প্রদান সম্পর্কে জেনেছেন বা লোন নিয়েছেন। তবে এখন যে ঋণ আবেদনটির বিষয়ে আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করতে যাচ্ছি সেটা আপনারা প্রায় সবাই ব্যবহার করে থকেন,মানে পেটিএম। এবার নিশ্চই অবাক হলেন এই ভেবে যে পেটিএম থেকেও আবার লোন নেওয়া যেতে পারে। হ্যাঁ বন্ধুরা পেটিএম সম্প্রতি ঋণ পরিষেবা শুরু করেছে, আপনি খুব সহজেই এই Paytm থেকে ঋণের জন্য আবেদন করতে পারেন।
তবে চলুন জেনে নেওয়া যাক পেটিএম থেকে কিভাবে লোন নিবেন?

পেটিএম  লোন

পেটিএম কি?

এখান থেকে লোন নেওয়ার আগে আমরা জেনে নেই যে পেটিএম আসলে কি। বন্ধুরা আপনাদের মধ্যে অনেকেই পেটিএম সম্বন্ধে অনেক কিছু জানেন। যাইহোক পেটিএম ভারতের নাম্বার ওয়ান পেমেন্ট অ্যাপ্লিকেশন । আপনারা এই অ্যাপ্লিকেশনটির সাথে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টটি যুক্ত করতে পারেন ও টাকা পয়সা লেনদেন খুব সহজে করতে পারেন এবং এখানে ভিম ইউপিআই এর সুবিধাগুলোও পাওয়া যায়। পেটিএম সে আপনি অনলাইন অথবা অফলাইন স্টোর থেকে শপিং করতে পারবেন যেমন আইআরটিসি, ফ্লিপর্কাট, Zomanto এমনকি Swiggy। এছাড়া এই অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি মোবাইলে রিচার্জ অথবা সিনেমার টিকিট বকিং করতে পারবেন। আর এত সব সুবিধার জন্যই গুগোল স্টোর থেকে এটি প্রায় 10 মিলিয়ন ডাউনলোড হয়েছে। এছাড়া এখন লোন পাওয়ার সহজ উপায় এটি।

পেটিএম লোন এখান থেকে আপনি কি পরিমান লোন নিতে পারবেন?

বন্ধুরা এই বিষয়ে একটা কথা মনে রাখবেন যে আপনি যদি কোন ঋণ প্রদানকারী সংস্থা বা লোন অ্যাপ থেকে লোন নেওয়ার কথা চিন্তা করছেন তবে অবশ্যই দেখে নেবেন আপনি কতটা অর্থ ঋণ হিসেবে পাচ্ছেন। কারণ অনেক সময় এরকম হয় যে যতটা অর্থ প্রয়োজন ততটা পাওয়া যায়না এবং পরে অন্য আরও অন্য কোন সংস্থা থেকে আবারো ঋণ নিতে হয়। সেজন্য বন্ধুরা যদি পেটিএম পার্সোনাল লোন নেওয়ার কথা চিন্তা করেন তাহলে জেনে রাখুন এখান থেকে সবচেয়ে কম ১ হাজার টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ২ লাখ টাকা ঋণ পেতে পারেন।

পেটিএম লোন এর রেট অফ ইন্টারেস্ট মানে সুদের হার কত?

বন্ধুরা এই সময়ে আপনারা যে কোন কোম্পানি অথবা লোন অ্যাপ থেকে লোন নিচ্ছেন তো অবশ্যই একটা কথা মনে রাখবেন যে আপনাকে ঋণ এর রেট অফ ইন্টারেস্ট কত দিতে হবে। কেননা লোন নেওয়ার চক্করে আমরা প্রায়ই ভুলে যাই লোনের ইন্টারেস্ট কত পারসেন্ট বা সেই সংস্থা সবকিছু ক্লিয়ার করে আমাদের বলছে কিনা অথবা কিছুটা লুকিয়ে রাখছে। পরে আমাদের অনেক বেশি রেট অফ ইন্টারেস্ট দিয়ে লোন অ্যামাউন্টটা পরিশোধ করতে হয়। এখন আমি এখানে পেটিএম পার্সোনাল লোন এর রেট অফ ইন্টারেস্ট কথা বলছি আপনাকে পেটিএম লোন সবচেয়ে কম করে ০.০৯ শতাংশ আর সবথেকে বেশি ১৩% প্রত্যেক বছরে ইন্টারেস্ট হিসাবে দিতে হবে। আপনি যখন এই লোনটির জন্য আবেদন করবেন সেইসময় প্রযোজ্য ইএমআই সহ সুদের হার আপনাকে দেখানো হবে।

Paytm Loan কতদিনের জন্য পাওয়া যায়?

বন্ধুরা আপনারা কোন লোন অ্যাপ্লিকেশন বা কোম্পানি থেকে লোনের জন্য আবেদন করছেন তো আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে কোম্পানি কতদিনের জন্য আপনাকে ঋণ দিচ্ছে কারণ তারা যদি কম সময়ের জন্য দিয়ে থাকে তখন দেখা গেল আপনি সঠিক সময়ে ঋণ পরিশোধ করতে পারছেন না। যাই হোক আমি এখানে Paytm Personal Loan-এর কথা বলব এরা আপনাকে চার মাস থেকে ৩৬ মাসের জন্য এই ঋণ দিয়ে থাকে।

পেটিএম পার্সোনাল লোন এর সুবিধা গুলি কি?

১। এখান থেকে আপনি অনেক বেশি এমাউন্ট লোন হিসাবে নিতে পারছেন
২। আপনাকে বেশ কম ইন্টারেস্ট রেট অফ ইন্টারেস্ট দিতে হবে
৩। এই লোনটি বেশ দীর্ঘ সময়ের জন্যই পাচ্ছেন
৪। এই লোনটি সম্পূর্ণ অনলাইনের মাধ্যমে নিতে পারবেন

Paytm Loan, এই লোনটিই আপনি কেন বাছবেন?

১। লোন টি প্রদান এর সময় কোন ক্রেডিট হিস্ট্রি নেওয়া হয় না
২। এটি একশভাগ অনলাইন, ঘরে বসেই আপনি এর জন্য এপ্লাই করতে পারবেন। অফলাইনে যাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই
৩। অল্প সময়ের মধ্যেই আপনার ব্যাংক একাউন্টে ঋনের টাকা চলে যাবে
৪। ভারতের যেকোনো জায়গা থেকে আপনি এই সুবিধাটি পেতে পারেন
৫। আপনারা সবাই এই ঋণটা খুব কম রেট অফ ইন্টারেস্ট পেয়ে যাবেন
৬। এই লোন পাওয়ার জন্য খুব বেশি কাগজপত্র প্রয়োজন নেই
৭। ঋণ পরিশোধের জন্যও দীর্ঘ সময় পাচ্ছেন
৮। যদি এই লোনের সুবিধাটি নেন তাহলে আপনার ক্রেডিট স্কোর ও বাড়বে

এই লোনটি নিয়ে আপনি কি কিভাবে ব্যবহার করতে পারেন?

পড়াশোনার খরচ এজন্য নিতে পারেন
ভ্রমণ করার জন্য নিতে পারেন
চিকিৎসার খরচের জন্য নিতে পারেন
বিয়ের খরচা বাবদ নিতে পারেন
বাড়ি তৈরীর কাজেও ব্যবহার করতে পারেন
মোবাইল, বাইক বা গাড়ি কিনতে পারেন ও আরো অন্যান্য কাজেও ব্যবহার করতে পারেন
পেটিএম পার্সোনাল লোন কে কে নিতে পারে
আপনাকে অবশ্যই ভারতের নাগরিক হতে হবে
আপনার বয়স কম করে ১৯ বছর এবং সর্বোচ্চ ৪৬ বছর হতে হবে
আপনার যে কোন একটি রোজগারের ব্যবস্থা থাকতে হবে

পেটিএম লোন ডকুমেন্ট

এই লোনটির জন্য কি কি কাগজপত্র লাগবে?

১। প্যান কার্ড
২। আধার কার্ড
৩। ব্যাংক একাউন্ট

এই লোনটি জন্য কিভাবে অ্যাপ্লিকেশন করবেন?

১। প্রথমে পেটিএম অ্যাপ্লিকেশনটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করুন যদি আপনার মোবাইলে আগের থেকেই ইনস্টল করা না থাকে
২। এরপর মোবাইল নম্বরটা দিন এবং ওটিপি কোড বসিয়ে অ্যাপ্লিকেশন টা একটিভ করে নিন
৩। এরপর কেওয়াইসি পদ্ধতি সম্পন্ন করতে হবে ও ব্যাংক একাউন্টের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।
৪। পার্সোনাল লোন এই অ্যাপ্লিকেশনটির মধ্যে সার্চ করুন
৫। পার্সোনাল লোন সিলেক্ট করে সেখানে লোন এমাউন্টটা বসিয়ে দিন
৬। তারপর প্রয়োজনীয় তথ্য গুলি দিয়ে দিন
৭। এরপর প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট গুলো আপলোড করে দিন
৮। এরপর আপনি কি কাজ করেন তার তথ্য দিয়ে দিন
৯। আপনার ঠিকানা দিয়ে দিন
১০। এরপর আপনার অ্যাপ্লিকেশনটি রিভিউতে চলে যাবে
১১। পেটিএম এর পক্ষ থেকে একটি ফোন আসবে
১২। কিছু তথ্য জানার পর তারা আপনার লোন এমাউন্টটা অ্যাপ্রুভ করে দেবে
১৩। আপনার ব্যাংক একাউন্টে লোনের টাকা চলে আসবে

বন্ধুরা এই পোস্টটি থেকে আপনারা সবাই পেটিএম এর পার্সোনাল লোন সম্বন্ধে খুঁটিনাটি তথ্য জানতে পারলেন। লোন পাওয়ার সহজ উপায় কি ও কিভাবে এই লোনের জন্য আবেদন করতে হয়। কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন। কত টাকা পাওয়া যায়। কত দিনে শোধ করা যায়। কে কে আবেদন করতে পারে। এই সব তথ্যই এখানে দেওয়া হয়েছে। যদি এই লোন সম্পর্কে আরো প্রশ্ন থাকে তাহলে Paytm-এর অফিসিয়াল সাইডে যান। এরপরেও যদি আপনাদের মনে কোনও প্রশ্ন থাকে তো আপনারা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আপনারা সুস্থ থাকুন ভালো থাকুন।

Share This:
Advertisement

Check Also

পিএনবি হাউসিং লোন ফর পাবলিক

পিএনবি হাউসিং লোন ফর পাবলিক কিভাবে আবেদন করবেন । পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক হোম লোন বিশেষ অফার

পিএনবি হাউসিং লোন : নতুন বাসস্থান ক্রয় বা নির্মাণ ও সম্প্রসারণ অথবা পুনর্নির্মাণের জন্য ঋণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *