Breaking News
গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্ন-উত্তর

আবাস প্লাস যোজনায় গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্ন-উত্তর । Pradhan Mantri Awas Yojana Gramin List AtoZ Information

Pradhan Mantri Awas Yojana Gramin (প্রধান মন্ত্রী গ্রামীন আবাস যোজনা) সংক্ষেপে পিএমএওয়াই(জি) PMAY(G) বা আবাস প্লাস যোজনায় গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট – ঘর ও নামের তালিকা সংক্রান্ত অনেক ধরনের প্রশ্ন রয়েছে যেগুলির উত্তর হয়তো খুঁজছেন কিন্তু পাচ্ছেন না। যেমন- আবাস প্লাস যোজনায় ঘর দেওয়া শুরু হয়েছে, কারা ঘর পাচ্ছেন আর কারা পাচ্ছেন না, কেন ঘর পাচ্ছেন না। আজ এই প্রবন্ধটিতে এই ধরনের বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন তুলে ধরা হল এবং সঠিক উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করা হল। আশা করি এই প্রশ্নগুলি হয়তো আপনার ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হতে পারে, তাই গোটা প্রবন্ধটি পড়ুন এবং প্রশ্নগুলির সঠিক উত্তর পেয়ে যান। 

গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট

Table of Contents

যে সকল ব্যক্তির নাম চূড়ান্ত তালিকা থেকে বাদ গেল সেটা কিভাবে জানা যাবে?

গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট থেকে বাদ যাওয়া ব্যক্তির নাম জানতে হলে আপনার নিকটস্থ পঞ্চায়েত অফিস অথবা বিডিও অফিসে যোগাযোগ করে জেনে নেওয়া যাবে কাদের নাম চূড়ান্ত তালিকায় রয়েছে ও কাদের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। 
এছাড়া অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে নামের তালিকার পাশে ‘রিজেক্ট’ কথাটি লেখা থাকলে বুঝতে হবে যে নামটি তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে ‌। 

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে আবাস প্লাস যোজনায় গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট কিভাবে পাবেন তা জানতে হলে নিচের লিংকটিতে ক্লিক করে সম্পূর্ণ প্রবন্ধটি পড়ে নিন। 

*আবাস প্লাস লিস্ট ২০২২-২৩, নাম অনলাইনে চেক করুন

গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট সংক্রান্ত বিশেষ প্রশ্ন-উত্তর :-

পাকা ঘর আছে এমন ব্যক্তির নাম আবাস প্লাস তালিকায় থাকলে তিনি কি ঘর পাবেন?

পাকা বাড়ি আছে এমন ব্যক্তি কিন্তু পিএমএওয়াই(জি) আবাস প্লাস যোজনায় ঘর পাওয়ার যোগ্য নয়। তাই তার ঘর পাওয়া সম্ভাবনা নেই। যখন অফিসিয়াল ইনকোয়ারি হয়েছে তখন এদের নাম তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

ব্যক্তি ঘর পাওয়ার উপযুক্ত কিন্তু তালিকায় নাম নেই। তিনি কি এখন ঘর পেতে পারেন বা নাম তুলতে পারেন?

আবাস প্লাস চূড়ান্ত তালিকায় যাদের নাম নেই তারা কিন্তু এই মুহূর্তে তালিকার নাম তুলতে পারবে না, পরবর্তীতে পেতে পারে । এখন যে তালিকা চূড়ান্ত হয়েছে এটি ২০২৪ সাল পর্যন্ত এই তালিকার ঘরদেওয়ার কাজ চলবে। ২০২৪ এর পর আবার যখন সার্ভে হবে তখন যারা বাদ গেছেন সেই সকল উপযুক্ত ব্যাক্তিদের নাম আবার তালিকাভুক্ত করা হবে।

আবাস প্লাস যোজনায় চূড়ান্ত তালিকায় নাম আছে কিন্তু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এখনো জমা নেয়নি। সেই ব্যক্তি কি ঘর পাবেন?

এখন পর্যন্ত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যাদের জমা নেওয়া হয়েছে তারা ছিল প্রথম অগ্রাধিকার তালিকায় যা মোট তালিকাভুক্ত নামের এক চতুর্থাংশ। এই তালিকায় রেসকল অগ্রাধিকার ব্যক্তি স্থান পেয়েছেন তাদেরই কাগজপত্র জমা নেওয়া হয়েছে এবং ঘর দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। এই কাজ ৩১ শে মার্চ ২০২৩ পর্যন্ত চলবে তারপরে পরবর্তী তালিকা তৈরি হবে এবং কাগজপত্র জমা নেওয়া হবে। তবে মূল তালিকাটি কিন্তু চারটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে যা হলো এস সি, এস টি, আদার্স, ও মাইনোরিটি। এই ভাগ অনুযায়ী যে তালিকা তৈরি হচ্ছে সেখানেও এই রেশিও মেনশন করা হচ্ছে।

আবাস প্লাস গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট -এ নাম থাকা কোন ব্যক্তি যদি মারা যায় তাহলে তার পরিবার কি এই ঘর পাবে?

আবাস প্লাস যোজনা যখন নাম তোলা হয়েছিল তখন সেই ব্যক্তির সঙ্গে তার পরিবারের সদস্যদের নামও তোলা হয়েছিল। এখন যদি তালিকায় থাকা ব্যক্তি মারা যায় তাহলে তার পরিবর্তে ঐ পরিবারের অন্য সদস্য এই ঘরের জন্য আবেদন করতে পারে এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিয়ে ঘর পেতে পারেন।

একই ব্যক্তি এই আবাস যোজনায় দুইবার ঘর পেতে পারেন?

আধার নাম্বারের ভিত্তিতেই এই ঘর গুলি দেওয়া হয়ে থাকে অতএব একই ব্যক্তি দু’বার ঘর কখনোই পেতে পারেনা।

আবাস প্লাস যোজনার টাকা কবে ব্যাংক একাউন্টে আসবে এবং কিভাবে আসবে?

যারা গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট -এ প্রথম অগ্রাধিকার তালিকায় রয়েছে এবং কাগজপত্র জমা নেওয়া হয়েছে তাদের ভেরিফিকেশন কমপ্লিট হওয়ার পর প্রথম কিস্তির টাকা ব্যাংক একাউন্টে আধার বেস পেমেন্ট সিস্টেম এর মাধ্যমে ক্রেডিট হয়ে যাবে। এজন্য উপভোক্তার আধার কার্ড ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে অবশ্যই লিংক থাকতে হবে। 

আবাস যোজনার তালিকায় নাম রয়েছে কিন্তু জব কার্ড নেই, সেই ব্যক্তিকে ঘর পাবেন?

যে সমস্ত ব্যক্তির আবাস প্লাস যোজনা তালিকায় নাম রয়েছে তাদের অবশ্যই জব কার্ড থাকতে হবে যদি কোন ব্যক্তির জব কার্ড না থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই তাকে জব কার্ড পঞ্চায়েত অফিস থেকে তৈরি করে নিতে হবে। পিএমএওয়াই(জি) PMAY(G) বা আবাস প্লাস যোজনা প্রযোজ্যে শর্ত গুলির মধ্যে এটি কিন্তু অন্যতম শর্ত যে ঘর পাওয়ার যোগ্য ব্যক্তিকে অবশ্যই জব কার্ড থাকতে হবে।

একই জব কার্ডে যদি একাধিক ব্যক্তির নাম থাকে তাহলে ঘর পাওয়ার ক্ষেত্রে কি কি অসুবিধা হতে পারে?

একই জব কার্ডে যদি একাধিক ব্যক্তির নাম থাকে এবং সেই ব্যক্তিদের নাম আবাস যোজনা তালিকায় থাকে তবে কিন্তু একজন ব্যক্তি আভাস প্লাস যোজনার ঘর পাবেন। বাকি ব্যক্তিরা কিন্তু ঘর পাওয়ার উপযুক্ত নয়।

গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘরের লিস্ট সংক্রান্ত এই সকল প্রশ্নের উত্তরগুলো কিন্তু বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও সরকারি দপ্তর এর সঙ্গে যোগাযোগ করে তুলে ধরা হলো এরপরেও যদি আপনার ঘর সংক্রান্ত কোনো প্রশ্ন থাকে বা উত্তর সন্দেহজনক মনে হয় তাহলে অবশ্যই আপনি নিকটবর্তী পঞ্চায়েত অথবা ভিডিও অফিসে আধিকারিকদের সঙ্গে যোগাযোগ করে নিতে পারেন। অথবা pmayg অফিশিয়াল ওয়েব সাইড যেতে পারেন। তথ্যসূত্র: Pandora’s Box PMAY(G) youtube চ্যানেল।

আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেল জয়েন করার জন্য ক্লিক করুন- https://t.me/loandarkar

Share This:
Advertisement

Check Also

আবাস প্লাস গ্রামীণ ২০২৩

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা গ্রামীণ ২০২৩ নতুন তালিকা । আবাস প্লাস লিস্ট ২০২২-২৩ নাম অনলাইনে চেক করুন

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা গ্রামীণ তালিকা ২০২২-২৩: ভারতে বসবাসকারী গ্রামীণ দরিদ্র পরিবারগুলি যাদের বসবাসযোগ্য বাড়ি নেই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *